গফরগাঁওয়ে ২১ মামলায় ১২ হাজার ৮শ’২০ টাকা জরিমানা

অপরাধ ও আইন দেশের খবর

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে মহামারী করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত লকডাউন অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা, কারণ ছাড়া ঘুরে বেড়ানো ও মাস্ক না পড়ায় ২১টি মামলায় ১২হাজার ৮২০টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো.তাজুল ইসলাম ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) কাবেরী রায়ের নেতৃত্বে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত উপজেলার গফরগাঁও ও পাগলা থানা যৌথ উদ্যোগে আদালতের এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়। এ সময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পাগলা থানার অফিসার ইনচার্জ রাশেদুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান ঢালী, আব্দুল্লাহ আল আমিন বিপ্লবসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

এদিন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় সরকার ঘোষিত ১ থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে ব্যাপক তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়।এ সময় পাগলা থানা এলাকার মশাখালী ইউনিয়নের মুখী বাজার, দত্তের বাজার ইউনিয়নের দত্তেরবাজার, লংগাইর ইউনিয়নের মাইজ বাড়ি বাজার, উস্থি ইউনিয়নের কান্দিপাড়া বাজার, পাইথল ইউনিয়নের গয়েশপুর বাজার, গফরগাঁও ইউনিয়নের মহির খারুয়া বাজারসহ ইউনিয়ন পযার্য়ের হাট-বাজারগুলোতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

একই সময়ে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) কাবেরী রায় গফরগাঁও বাজারসহ পৌর শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় লকডাউন অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা, কারণ ছাড়া ঘুরে বেড়ানো ও মাস্ক না পড়ায় ২১টি মামলার বিপরীতে ১২হাজার ৮২০টাকা জরিমানা করেন তিনি।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো. তাজুল ইসলাম বলেন, সরকারি প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী উপজেলা ও থানা প্রশাসন করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছে। লকডাউন বাস্তবায়নে সবার্ত্মক চেষ্টা চালানো হচ্ছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে।