পাওনা টাকা চাওয়ায় দুই শ্রমিককে কুপিয়ে জখম

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর

মোল্লাহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোল্লাহাটে পাওনা টাকা চাওয়ায় শ্রমিক সর্দার ও তার তিন ছেলে একযোগে রাম দা ও কোদাল দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে জামির শেখ (৩৫) ও বাচ্চু মোল্লা (৫৫) নামের দুই শ্রমিককে। এ ঘটনায় শ্রমিকদের আপনজন ও গ্রামবাসী মিলে সোনা মোল্লা নামের ওই শ্রমিক সর্দারের বাড়ি ঘর ভাঙচুর করেছে।

রোববার (১৩ জুন) উপজেলার নতুন ঘোষগাতী এলাকায় ন্যাক্কারজনক এই ঘটনা ঘটে।

জখম দুই শ্রমিক হলেন, নতুন ঘোষগাতী গ্রামের মৃত কুদ্দুস শেখের ছেলে জামির শেখ ও কুলিয়া বড়ঘাট এলাকার মৃত রুস্তম মোল্লার ছেলে বাচ্চু মোল্লা।

আহতদেরকে এলকাবাসী উদ্ধার করে প্রথমে মোল্লাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। এরপর উন্নত চিকিৎসার জরুরী প্রয়োজনে তাদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানায়, ঘটনার পূর্বে শ্রমিক সর্দার সোনা মোল্লার কাছে ২৭ হাজার পাওনা টাকা চাইতে যায় ৭/৮ জন শ্রমিক। তখন সোনা মোল্লা তার ছেলেদের নিয়ে কোদাল সহকারে কাজের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে সোনা মোল্লার বাড়ির কাছের চার’র (সাকো) কাছে শমিকদের সাথে সাক্ষাত হয়। এ সময় শ্রমিকরা তার কাছে পাওনা টাকা চাইলে সর্দার ও তার ছেলেদের সাথে তর্ক-বিতর্ক হয়। এরই মাঝে সর্দারের ছেলেরা নিকটস্থ নিজ বাড়ি থেকে দ্রুত ধারালো রামদা এনে শ্রমিকদেরকে উপর্যুপরি কোপাতে থাকে। একইসাথে সর্দারও কোদাল দিয়ে আঘাত করে। এ ঘটনায় শ্রমিকদের মাঝে দু’জন গুরুতর জখম হয় এবং বাকি শ্রমিকরা দৌড়ে রক্ষা পায়। আহত দুই শ্রমিককে এলকাবাসী উদ্ধার করে প্রথমে মোল্লাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে, শ্রমিকদেরকে কুপিয়ে যখম করার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী শ্রমিক সর্দার সোনা মোল্লার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। এ ঘটনার পর থেকে শ্রমিক সর্দারসহ তার পরিবারের সকলে পালাতক রয়েছে।

মোল্লাহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন লিখিত অভিযোগ হয়নি।

শেখ শাহিনুর ইসলাম/চারিদিক/আকাশ