অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মুখোশধারীদের দুর্ধর্ষ চুরি

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর

মোল্লাহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোল্লাহাটে মুখোশ ও হ্যান্ড গ্লাভস পরিহিত ৮/১০ জনের সংঘবদ্ধ দুস্কৃতিকারীরা ঘরে ঢুকে পরিবারের সকলকে ধারালো অস্ত্রের মূখে জিম্মি করে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও কাপড় লুট নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (১১ জুন) দিনগত রাত ১টা হতে ৩টা পর্যন্ত উপজেলার আংরা গ্রামে জিনুর শিকদারের ফাঁকা বাড়িতে দুর্ধর্ষ এই ঘটনা ঘটে।

গৃহকর্তা জিনুর শিকদারের ছেলে কৃষক সবুজ শিকদার (৩০) জানান, জানালার ফাঁকা দিয়ে হাত ঢুকিয়ে দরজা খুলে সংঘবদ্ধ চোরেরা ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে। এরপর আমাকেসহ আমার স্ত্রী এবং বৃদ্ধ বাবা ও মা’কে একে একে ডেকে তুলে সকলকে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে। আমার স্ত্রী, মা ও শিশু কন্যার তিন জোড়া কানের দুল ও একটি চেইন চোরদের কাছে দিতে বাধ্য করে। পরে তারা আমাদের ঘরের ধান, চাল, কাথা-কাপড়সহ সর্বস্ব তছনছ করে। এ সময় ঘরে থাকা নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা ও কাপড় পর্যন্ত তারা নিয় যায়। এছাড়া আমাদের ঘরে দীর্ঘ দুই ঘন্টা অবস্থান করাসহ ফ্রিজে থাকা মিষ্টি ও ঘরে থাকা আম ও কাঠাল খায় তারা (চোররা)। সবশেষে আমাকে পেছন হাত করে বেধে রেখে যায় তারা। এ ঘটনায় চোরদের চিনতে না পারায় এবং পরবর্তীতে বিপদের ভয়ে মামলা করবেন কি না ভেবে চিন্তে সিদ্ধান্ত নিবেন বলেও জানান এই গৃহকর্তা।

তিনি (জিনুর শিকদার) জানান, ‘রাত আনুমানিক ১টার দিকে আমাকে চাচা বলে ডেকে ঘুম ভাংগিয়ে বলে, ঘরে নগদ টাকা কোথায় আছে? এ সময় আমি প্রথমে একজনকে জড়িয়ে ধরে আমার ছেলেকে ডাকি। তখন তারা আমার মুখের উপর ধারালো রাম-দা ধরে বলে চিৎকার করবেন না। ওই দায়ের মাথা আমার মুখে লেগে সামান্য কেটে গেছে। যে কারণে আমি আর চিৎকার করিনি।’

জিনুর শিকদারের স্ত্রী নুরজাহান বলেন, ‘আমাকে চাচি বলে ডাক দিয়ে চোররা বলে আপনার কানের দুল দেন। তখন আমি চিৎকার করলে ওরা আমার গলা পাড়িয়ে ধরে ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে বলে জবাই করে ফেলবো। এরপর আমি কানের গহনা খুলে দিই এবং ওদের ভয়ে দোয়া পড়তে থাকি। একইভাবে তারা আমার ছেলের বউ এবং শিশু নাতিনের কানের দুল নেয়।’

এদিকে খবর পেয়ে মোল্লাহাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মো. গোলাম কবীর শনিবার সকালে ওই বাড়িসহ আশপাশের এলাকা পরিদর্শন করেছেন। একই সাথে দুস্কৃতিকারীদের ধরতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছেন বলেও জানান তিনি।

শেখ শাহিনুর ইসলাম/চারিদিক/আকাশ