একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজীর স্মরণ সভা

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর

মাহবুব হোসেন পিয়াল, ফরিদপুর : একুশে পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট কবি বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক, ফরিদপুরের কৃতি সন্তান কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজী স্মরণে এক স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সন্ধ্যায় ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদের আয়োজনে এই স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক আলতাফ হোসেন।

কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজীর জীবন ও কর্মের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক মৃধা রেজাউল করিম’র পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক এম.এ সামাদ, যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর এ বি এম সাত্তার, দৈনিক ইত্তেফাকের সহকারী সম্পাদক চলচ্চিত্র নির্মাতা অদ্বয় দত্ত , সাহিত্য পরিষদের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল্লাহ আল মামুন, সাধারণ সম্পাদক মফিজ ইমাম মিলন, বিশিষ্ট নাট্যকার ম আহমেদ নিজাম , কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজীর পরিবারের পক্ষে কামরুল হাসান জুয়েলসহ অন্যান্যরা।

সভায় কবিতা আবৃত্তি করেন কবি মাজেদুল হক লিটু, কবি শুভ রহমান, কবি আলীম আল রাজি আজাদ, কবি রুবিয়া ইয়াসমিন, কবি তারিন তাসমিন, কবি মাসুদ হোসেনসহ অন্যান্যরা।

কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী পেশায় ছিলেন প্রকৌশলী। তবে কবি হিসেবেই তিনি সবার কাছে পরিচিত ছিলেন। ফরিদপুরের রসুলপুরে তাঁর জন্ম ১৯৪৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর। বাবা আবুল হোসেন সিরাজী, মা জাহানারা বেগম। ফরিদপুর জিলা স্কুল থেকে ১৯৬৪ সালে মাধ্যমিক ও রাজেন্দ্র কলেজ থেকে ১৯৬৬ সালে উচ্চমাধ্যমিক পাস করে তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশলী বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে ১৯৭০ সালে স্নাতক ডিগ্রি নেন।

ছাত্রজীবন থেকেই হাবীবুল্লাহ সিরাজী সাহিত্য চর্চা করতেন। কবিতাই তাঁর প্রধান ক্ষেত্র। তবে অনুবাদ, প্রবন্ধ, শিশুতোষ রচনা আর উপন্যাসও রচনা করেছে তিনি। গত শতকের আশির দশকে জাতীয় কবিতা পরিষদ গঠনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন। চারবার তিনি সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজীর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ ৩০টির বেশি। এছাড়া ছড়া, উপন্যাস, প্রবন্ধ, অনুবাদ মিলিয়ে গ্রন্থ সংখ্যা অর্ধশতাধিক। উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে, ‘দাও বৃক্ষ দাও দিন’, ‘নোনা জলে বুনো সংসার’, ‘সিংহদরজা’, ‘সারিবদ্ধ জ্যোৎস্না’, ‘স্বপ্নহীনতার পক্ষে’, ‘একা ও করুণা’, ‘কবিরাজ বিল্ডিংয়ের ছাদ’ ইত্যাদি।

সাহিত্যকর্মে অবদানের জন্য কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী একুশে পদক, বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার, জাতীয় কবিতা পরিষদ পুরস্কার, আলাওল সাহিত্য পুরস্কার, বিষ্ণু দে পুরস্কারসহ দেশে-বিদেশে অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ২৪ মে রাতে কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকায় ইন্তেকাল করেন। পরদিন ২৫ মে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের জন্য সকাল ১০টায় বাংলা একাডেমিতে নেওয়া হয় সেখানে জানাজা ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়।পরে কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজীর দ্বিতীয় জানাজা আজিমপুর কবরস্থানে অনুষ্ঠিত হবার পর সেখানেই তাকে দাফন করা হয়।

মাহবুব হোসেন পিয়াল/চারিদিক/আকাশ