সাংবাদিক রোজিনার মুক্তি দাবি ইবি তরুণ কলাম লেখক ফোরামের 

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর
ইবি প্রতিনিধি : দৈনিক প্রথম আলাের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক অনুসন্ধানী সাংবাদিক রােজিনা ইসলামের মুক্তি ও সারাদেশে লেখক–সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধের দাবিতে ভার্চুয়াল মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

বৃহস্পতিবার (২০ মে) কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে এ কর্মসূচি পালন করেন সংগঠনটির সদস্যরা। এ সময় হাতে বিভিন্ন প্রতিবাদী লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড ও পোস্টার প্রদর্শন করেন তারা।

সংগঠনটির সদস্যরা সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি, মামলা প্রত্যাহার এবং তদন্তপূর্বক হামলাকারী আমলাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের হুমকিও দেন তারা।

‘হাতকড়া লেখকের হাতে সংবিধান ডুকরে কাঁদে, সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মুক্তি চাই, আমাদেরকে স্বাধীনভাবে লিখতে দিন, সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধ করুন, স্বাধীন দেশের লেখক আমি পরাধীন নই, অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে সাংবাদিক গ্রেফতার বন্ধ করুন’ সহ বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সমূহে প্রতিবাদ করেন সংগঠনের সদস্যরা।

এ বিষয়ে শাখার সাধারণ সম্পাদক এস এ এইচ ওয়ালিউল্লাহ বলেন, ‘লেখক এবং সাংবাদিকরা তাদের লেখনির মাধ্যমে স্বচ্ছ ও জবাবদিহিমূলক রাষ্ট্রব্যবস্থার পক্ষেই কাজ করে। রোজিনা ইসলামকে চুরির মামলায় ফাঁসিয়ে গণমাধ্যমের ইতিবাচক চর্চাকে ভয়ের সংস্কৃতির মাধ্যমে রোধ করতে চায় কতিপয় দুর্নীতিগ্রস্ত ব্যক্তি ও গোষ্ঠী। রোজিনা ইসলামের উপর আরোপিত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার সহ তাঁর নিঃশর্ত মুক্তির মাধ্যমে লেখক- সাংবাদিক নির্যাতনের ইতি টানতে হবে। একই সাথে পূর্বে সকল সাংবাদিক ও লেখকদের হেনস্থার সাথে জড়িতদেরও শাস্তির আওতায় আনতে হবে।’

শাখার সভাপতি আশিকুর রহমান বলেন, ‘প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলাম এখন কারাগারে। এটা নিঃসন্দেহে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের পথে বড় অন্তরায়। যেটা স্পষ্টত গণমাধ্যমের স্বাধীনতাকে খর্ব করে। অনতিবিলম্বে সুষ্ঠু সাংবাদিকতার পরিবেশ নিশ্চিত করার পাশাপাশি রোজিনা ইসলামকে নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানাচ্ছি।’

নাহিদ হাসান/চারিদিক/সাকিব