গরমে চটপট শরবত

ফিচার

জাঁকিয়ে পড়েছে গরম। বাইরে রোদ যেন গায়ে ছ্যাঁকা দিচ্ছে, তার যোগ্য দোসর হয়ে বইছে লু বা গরম হাওয়া। বাড়ির বড়রা তো বটেই, বাচ্চারাও যেন নেতিয়ে পড়ছে গ্রীষ্মের চোখরাঙানি দেখে। এই সময় এমন কিছুই তো দরকার, যা শরীর ও মন দুইই ঠান্ডা করবে। লু-এর হাত থেকে বাঁচাবে বাচ্চাগুলোকে। আবার বাচ্চারা তো শুধু স্বাস্থ্য ব্যাপারটা ঠিক বোঝে না যে, আপনি যা হোক কিছু টুক করে বানিয়ে দিলেন আর ওরা ঢুক করে গিলে নিল। বাবাজীদের জিভের স্বাদটি যে ষোল আনা। বাচ্চা স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছে বা খেলাধূলা করে ক্লান্ত, বা ধরুন গরমের ছুটিতে মায়ের কাছে আবদার হল নতুন কিছু খাওয়ানোর। কী এমন বানাবেন বলুন তো, যা চটজলদি হয়ে যায়, খেতেও দারুণ মজাদার আবার স্বাস্থ্যগুণেও টইটম্বুর। আর বলাই বাহুল্য, গরমের খারাপ দৃষ্টি থেকেও রক্ষা করবে আপনার বাচ্চাকে এরাই। আরও বলতে হবে? রকমারি শরবতের চেয়ে বাচ্চাদের বেশি প্রিয় আছে কিছু ? দেখে নিন এই ঠান্ডা রেসিপি। গরমে করুন বাজিমাত।

এই গরমে যারা শরবত, ফলের জুস, মিল্কশেক-এর রেসিপি খুঁজছেন তাদের জন্য! নিজে খান, আমাদেরও আমন্ত্রণ জানান!

‘আম পোড়ার শরবত’

উপকরণ (Ingredients) :
কাঁচা আম ২-৩ টি
চিনি
বিট নুন
ঠান্ডা জল
গোলমরিচ গুঁড়ো

প্রণালী (Method) : প্রথমে কাঁচা আমগুলিকে আগুনের আঁচে পুড়িয়ে নিন। আমের ওপরের ছাল কালো কালো হয়ে গেলে একটা কাঁটাচামচ আমের গায়ে ফুটিয়ে দেখে নিন আম নরম হয়েছে কি না। পোড়ানো হয়ে গেলে আমগুলো ঠান্ডা জলে ফেলে দিন ও আমের খোসা ছাড়িয়ে নিন। এবার আমের শাঁস আলাদা করে নিয়ে ব্লেন্ডারে রাখুন। এর সাথে বিট নুন ও প্রয়োজনমতো চিনি দিন। এবার পুরো মিশ্রণটা ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। মিশ্রণটিতে অল্প ঠান্ডা জল দিয়ে গুলে সেটি অন্য একটা পাত্রে ছেঁকে নিন। খেতে দেওয়ার আগে অল্প গোলমরিচের গুঁড়ো ছড়িয়ে দিন।

‘বেলের মিষ্টি শরবত’

উপকরণ (Ingredients) :
পাকা বেল
চিনি ব্লেন্ডারে মিহি করে গুঁড়ো করা
পাতিলেবু বা গন্ধরাজ লেবু
ঠান্ডা জল
বিট নুন বা সাধারণ নুন

প্রণালী (Method) : পাকা বেল ফাটিয়ে ভিতর থেকে পুরো শাঁসটা বের করে নিন। ঠান্ডা জলে বেলের শাঁস কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। শাঁস নরম হয়ে এলে চটকে ক্কাথ বার করে নিন এবং ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে নিন। বেল কতটা মিষ্টি সেটা পরখ করে নিয়ে ওই ক্কাথে স্বাদমতো চিনির গুঁড়ো মিশিয়ে নিন।
চিনি ভালো করে গুলে এলে অল্প বিট নুন আর গন্ধরাজ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। ঠান্ডা ঠান্ডা খেতে দিন।

‘তরমুজের শরবত’

উপকরণ (Ingredients) :
তরমুজ ২০০ গ্রাম
আদা ৫ গ্রাম
লেবুর রস ৫ মিলিগ্রাম
লবণ-চিনি স্বাদ অনুযায়ী
জল

প্রণালী (Method) : তরমুজ কেটে খোসা ফেলে টুকরো করে নিন। তরমুজের বীজ বের করে নিন। এক সাথে সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে জল দিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করুন। ৩০ মিনিট ফ্রিজে রেখে এবার পরিবেশন করুন। উপরে বরফও দিতে পারেন চাহিদা মতো৷

কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য : বাচ্চার ঠান্ডা লাগার ধাত থাকলে তাকে সরাসরি ফ্রিজের জিনিস দেবেন না। একটু গরম হয়ে এলে তবেই দিন। যে কোনও শরবত বা স্মুদি বানাতে ব্যবহার করুন টাটকা তাজা ফল। বাচ্চা ঘেমে নেয়ে রোদ থেকে বাড়ি এলে সঙ্গে সঙ্গে জল বা কোনও ঠান্ডা শরবত দেবেন না। হতে পারে সান স্ট্রোক। একটু বসে বিশ্রাম নেওয়ার পরেই দিন। তথ্যসূত্র : বেবি ডেস্টিনেশন