১২ ঘন্টা পর মধুমতি থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়ায় মধুমতি নদীতে গোসল করতে গিয়ে হামিদা খাতুন (৮) নামে এক শিশু ডুবে মারা গেছে । দীর্ঘ ১২ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) সকালে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস ও ডুবুরি দল।

নিহত হামিদা খাতুন উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের পুরানো আমডাঙ্গা গ্রামের হোসেন আলী মেয়ে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ওই শিশু তার মা আয়েশা আক্তারের সাথে মধুমতি নদীর আজিমের ঘাটে গোসল করতে যায়। গোসল শেষে আয়েশা বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। তখনও শিশু হামিদা নদীতে গোসল করছিল । এর কিছুক্ষণ পরেই হামিদা নদীতে ডুবে নিখোঁজ হয়। প্রায় আধা ঘন্টা পর শিশুর মা আয়েশা নদীর ঘাটে এসে হামিদার সন্ধান না পেয়ে ঘটনাটি এলাকাবাসীকে জানান । খবর পেয়ে লোহাগড়া ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মাসুদ রানার নেতৃত্বে একদল ফায়ার সার্ভিস কর্মী এলাকাবাসীর সহযোগিতায় নদীতে উদ্ধার অভিযান চালিয়েও ডুবে যাওয়া শিশু হামিদার সন্ধান মেলেনি।

এদিন সন্ধ্যায় খুলনা থেকে ডুবুরি দলের টিম লিডার বাশার তালুকদারের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং অভিযান শুরু করে । কিন্তু বৃহস্পতিবার রাত দশটা পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চললেও ডুবে যাওয়া শিশুর সন্ধান পাওয়া যায়নি। অবশেষে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ডুবুরি দল নদী থেকে শিশু হামিদার মরদেহ উদ্ধার করে ।

লোহাগড়া থানার উপপরিদর্শক মাসুদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, নদীতে ডুবে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

চারিদিক/সাকিব