সরস্বতী পূজায় সম্প্রীতির মিলনমেলা

যশোর জেলার খবর

যশোর অফিস : নানা আয়োজনে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) বিদ্যার দেবি সরস্বতী পূজা উদযাপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল নয়টার দিকে প্রতিমা স্থাপনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সরস্বতী পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। এতে সনাতন ধর্মাবলম্বী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

এদিন বেলা ১১টায় সরস্বতী পূজা উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন।

যবিপ্রবি পূজা উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন যবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আব্দুল মজিদ, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীব, পূজা উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব কিশোর কুমার সরকার প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন যবিপ্রবির রিজেন্ট বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান, জীববিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোঃ জিয়াউল আমিন, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. সুমন চন্দ্র মোহন্ত, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আমজাদ হোসেন, ড. ইঞ্জিনিয়ার পরিচালক (পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও পূর্ত) পরিতোষ কুমার বিশ্বাস, প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. দীপক কুমার মন্ডল, কেমিক্যাল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সুজন চৌধুরী, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তরুন সেন, গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সমীরণ মন্ডল, দীপা রায় প্রমুখ।

আলোচনা সভা পরিচালনা করেন পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মৌমিতা চৌধুরী।

সরস্বতীর পূজা উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠের পশ্চিমপাশে প্যান্ডেল করে পূজা অর্চনার ব্যবস্থা করা হয়। সকাল ছয়টার দিকে প্যান্ডেল স্থলে সরস্বতীর প্রতিমা আনা হয়। সকাল নয়টা ১০ মিনিটে প্রতিমা স্থাপন করা হয়। সকাল ১০টা ১০ মিনিট থেকে শুরু হয় পুষ্পাঞ্জলি। পুষ্পাঞ্জলি শেষে ভক্তদের মাঝে প্রসাদ বিতরণ করা হয়।

বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারীর কারণে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত পরিসরে এবারের সরস্বতী পূজার আনুষ্ঠানিকতা পালন করা হয়। তারপরেও ধীরে ধীরে সকল মত-পথের লোকজনের সমাগমে পূজা প্রাঙ্গণ পরিণত হয় সম্প্রীতির মিলনমেলায়।

চারিদিক/এম