গফরগাঁওয়ে এলো প্রত্যাশিত করোনা ভ্যাকসিন

দেশের খবর

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের জন্য সরকারের বরাদ্দকৃত ২৪ হাজার ১৫১টি করোনা ভ্যাকসিন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসেছে। বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নিজস্ব এ্যাম্বুলেন্সে ময়মনসিংহ থেকে প্রেরণ করেন কর্তৃপক্ষ। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাইনুদ্দিন খান ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন।

এ সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. নাসরিন সুলতানা মুন, এমওডিসি ডা. সিফাত জামিল তারেকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারী সারাদেশে একযোগে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ (টিকাদান) শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ এ সংক্রান্ত সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন। প্রস্তুতির অংশ হিসাবে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাইনুদ্দিন খান, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাহবুবা আজিজ, এমওএমসিএইচ ডা. সুলতান আহম্মেদ, এমওডিসি ডা. সিফাত জামিল তারেক ময়মনসিংহ থেকে টিকাদান(করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ) বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।

মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) ওই চার কর্মকর্তা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাঠ পর্যায়ের ১৮টি টিমের ৩৬জন নার্স, সাব এসিস্ট্যান্ট কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার (স্যাকমো), ফ্যামিলি ওয়েলফেয়ার ভিজিটর (এফডব্লিউডি) ও স্বাস্থ্য সহকারিকে টিকাদান ও করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ বিষয়ে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। এছাড়াও করোনা ভ্যাকসিন সুরক্ষিত রাখার জন্য ফ্রিজ, আইএলআর প্রস্তুত রেখেছেন।

জানা যায়, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনটি টিম সহ প্রতি ইউনিয়নে একটি করে উপজেলায় মোট ১৮টি করোনা টিকাদান টিম সার্বক্ষনিক কাজ করবে। প্রতি টিমে দুইজন টিকাদানকারী ও চারজন স্বেচ্ছাসেবী থাকবেন। তবে আগে থেকে অনলাইনে (www.surokkha.gov.bd) নাম রেজিষ্ট্রি ছাড়া কাউকে কোভিট-১৯ টিকাদান করা হবে না।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাইনুদ্দিন খান বলেন, আমরা ৭ ফেব্রুয়ারিকে সামনে রেখে টিকাদানকারী ও ভলান্টিয়ারদের প্রশিক্ষণ প্রদানসহ সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি।

চারিদিক/এম