ছাত্রলীগের বখাটে কর্মীর হমালায় বাবা-ছেলে আহত

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর রাজনীতি

মহিদুল ইসলাম,শরণখোলা (বাগেরহাট)।।
দুই চোরকে ধরিয়ে দেওয়ার অপরাধে বাগেরহাটের শরণখোলায় একটি খাবার হোটেলে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে কতিপয় ছাত্রলীগের কর্মী। শুক্রবার(৩১ অক্টোবর) বিকেলে উপজেলা সদরের রায়েন্দা বাজারের ‘বিসমিল্লাহ’ নামের খাবার হোটেলে এই ঘটনা ঘটে।
হামলাকারী উচ্ছৃঙ্খল ছাত্রলীগ কর্মীরা হোটেল মালিক জাকির হোসেন (৫২) ও তার ছেলে ফয়সালকে (১৭) মারধর করে চেয়ার-টেবিল, ক্যাশবাক্স ভেঙে টাকাপয়সা নিয়ে যায় বলে অভিয়োগ করেছেন ওই হোটেল মালিক।

আহত বাবা-ছেলে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
ক্ষতিগ্রস্ত হোটেলের মালিক জাকির হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার জিলবুনিয় গ্রামের নাছির উদ্দিনের বাড়িতে চুরি করেত গিয়ে একই গ্রামের শাহিন (২২) ও নুর ইসলাম (২৩) নামের দুই যুবক ধরা পড়ে এলাকাবাসীর হাতে। এসময় জাকির হোসেন স্থানীয় চৌকিদার ও পুলিশকে চোর ধরা পড়ার খবর দেন। পরে পুলিশ এসে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের মেম্বরের মধ্যস্থতায় আটক ওই দুই যুবককে ছেড়ে দেয়।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনার পরেরদিন ঘটনার প্রতিশোধ নিতে শাহিন ও নুর ইসলাম সঙ্গবদ্ধ হয়ে ইমরান, রবিউল, তরিকুল, শাকিল গাজীসহ ছাত্রলীগ নামধারী ১৫-১৬ জন যুবক এসে ওই হোটেলে হামলা ও ভাঙচুর শুরু করে। এতে বাধা দিলে হোটেল মালিক জাকির ও তার ছেলেকে এলেপাতাড়ি লাথি-ঘুষি মেরে আহত করে তারা। এসময় হামলাকারীরা ক্যামবাক্স ভেঙে টাকাপয়সা নিয়ে যায় বলে অভিযোগ।

এব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক সাইফুল ইসলাম জীবন জানান, দলে এদের কোনো পদ-পদবি নেই। এরা সবাই নামধারী ছাত্রলীগ। তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাইদুর রহমান জানান, ক্ষত্রিগস্ত হোটেল মালিক একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দোষিদের আইনের আওতায় আনা হবে।

শরণখোলার নবনির্বাচিত উপজেলার চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা রায়হান উদ্দিন শান্ত বলেন, সরকার ও দলের নাম ব্যবহার করে কেউ অপকর্ম করলে তাদের কোনো ছাড় নেই।