এবার বার্ড ফ্লুর থাবা মানবদেহে, আতঙ্ক

আন্তর্জাতিক

আন্তজার্তিক ডেস্ক : ভারতে বার্ড ফ্লু (Bird Flu) ছড়ানো শুরু হয়েছে অনেক দিন আগেই। করোনা আবহেই হিমাচল প্রদেশ, দিল্লি, মধ্য প্রদেশে ছড়াতে শুরু করেছিল বার্ড ফ্লু। সংক্রমণের গতি এতটাই বেশি ছিল যে ভিন্ রাজ্য থেকে মুরগি আমদানি বন্ধ করেছিল বেশ কয়েকটি রাজ্য। দিল্লিতে নির্দেশিকা জারি হয়েছিল, কোনও রেস্তরাঁয় বিক্রি হবে না ডিম, মাংস। যাতে মানবদেহে বার্ড ফ্লু না ছড়ায়, তার জন্য ডিম ও মাংস সম্পূর্ণ রান্না করে তবেই খেতে বলেছিল স্বাস্থ্য দফতর। ভারত ছাড়াও বিশ্বের অন্যান্য দেশে বার্ড ফ্লু সংক্রান্ত সতর্কতা মানা হয়। তবে রাশিয়ার বার্ড ফ্লুর স্ট্রেন মানবশরীরে সংক্রমিত হওয়ার পর চিন্তার ভাঁজ আরও শক্ত হল চিকিৎসকদের।

পুতিনের দেশে এইচ৫এন৮ স্ট্রেনে আক্রান্ত হয়েছেন একজন। মানবদেহে বার্ড ফ্লুর এই স্ট্রেনের সংক্রমণ, এর আগে দেখা যায়নি। তাই ১ জন আক্রান্ত হওয়ায় তড়িঘড়ি সে কথা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে জানিয়েছে রাশিয়া। রাশিয়ার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ ফেডারিল সার্ভিস ফর সার্ভিয়ালেন্স অন কনজিউমার রাইটস প্রোটেকশন অ্যান্ড হিউম্যান ওয়েলবিংয়ের প্রধান অন্না পোপোভা জানিয়েছেন, বিশ্বের প্রথম মানব শরীরে অ্যাভিয়ান ফ্লু ছড়ানোর বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে অবগত করা হয়েছে। এর আগে পাখিদের শরীরে ছড়ালেও কখনও এই স্ট্রেন মানবদেহে ছড়ায়নি।

ভাইরাসটির কি আরও অভিযোজন হতে পারে? সে বিষয়ে এখনই নিশ্চিত হয়ে কিছু জানাননি পোপোভা। তিনি বলেছেন, “এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার।” প্রসঙ্গত দিল্লিতে যখন বার্ড ফ্লু-র বাড়বাড়ন্ত দেখা গিয়েছিল, তখন মিউনিসিপাল কর্পোরেশন নির্দেশিকা প্রকাশ করে জানিয়েছিল, বার্ড ফ্লুর জন্য পাইকারি পোলট্রি বাজার বন্ধ রাখতে হবে। অন্য কোনও নির্দেশিকা না আসা পর্যন্ত মাংস বা মাংস সংক্রান্ত কোনও পণ্য বিক্রি করা যাবে না। সব রেস্তরাঁকেও মাংস ও ডিম সংক্রান্ত খাবার নিষিদ্ধ করতে বলে তার আগেই নির্দেশিকা দিয়েছিল কর্পোরেশন। যদি কেউ এই নির্দেশিকা অমান্য করে তাহলে তাঁর লাইসেন্স কেড়ে নেওয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছিল কর্পোরেশন।

এই স্ট্রেন মানবদেহে সংক্রমিত হওয়ার পর পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসক সিদ্ধার্থ জোয়ারদার জানান, এই খবর পেয়ে তিনি বেশ চিন্তিত। এর আগে এই স্ট্রেন মানবদেহে ছড়াত না। কিন্তু তা হওয়ায় নিঃসন্দেহে চিন্তা বাড়ছে। এমনকি হিমাচল প্রদেশ-সহ অন্যান্য রাজ্যে কয়েক দিন আগে এই স্ট্রেনই ভারতে ছড়িয়েছিল। তবে সতর্কতা মেনে চলার ক্ষেত্রে সিদ্ধার্থবাবুর পরামর্শ, ডিম, মাংস কষে খান। এবং পাখিদের সঙ্গে সরাসরি সংযোগ এড়িয়ে চলুন। টিভিনাইনবাংলা