একুশে ফেব্রুয়ারিতে হচ্ছে না দু’বাংলার মিলনমেলা

ফিচার যশোর জেলার খবর

চারিদিক ডেস্ক : একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে এবার হচ্ছে না দুই বাংলার মিলনমেলা। করোনার কারণে খুলছে না বেনাপোল সীমান্ত গেট। প্রতি বছরই যশোরের বেনাপোল চেকপোস্ট নোম্যান্সল্যান্ডে বসে দুই বাংলার মানুষের মিলনমেলা। বুকে কালো ব্যাজ, মুখে ধ্বনিত হয় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’।

এ উপলক্ষে নানা রঙের ফেস্টুন, ব্যানার, প্ল্যাকার্ড, ফুলে-ফুলে ছেয়ে যায় নোম্যান্স ল্যান্ড। তখন দুই দেশের সীমান্তের মধ্যবর্তী ওই স্থানে আবেগাপ্লুত পরিবেশের সৃষ্টি হয়। একে অপরকে আলিঙ্গন করে সব ভেদাভেদ যেন ভুলে যান কিছু সময়ের জন্য। উভয় দেশের আবেগপ্রবণ অনেক মানুষ একজন অপরজনকে জড়িয়ে ধরে হাউমাউ করে কেঁদেও ফেলেন।

কিন্তু এ বছর করোনার কারণে মিলনমেলা হচ্ছে না। তবে ওপারে ছোট করে অনুষ্ঠান হবে। সেখানে স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ বাংলাদেশের ১০০ জনকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে দুই বাংলার একুশ উদযাপন কমিটির বেনাপোলের আহ্বায়ক উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, করোনার কারণে সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি মাথায় রেখে উভয় দেশের আয়োজকরা আলোচনা করে এবার বেনাপোল চেকপোস্ট নোম্যান্স ল্যান্ডে দুই দেশের একুশের মিলনমেলা হচ্ছে না।

তবে পেট্রাপোলে ছোট একটি অনুষ্ঠান হবে। সেখানে বাংলাদেশের কয়েকজনকে তারা আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতি উন্নতি হলে আগামী বছর থেকে পুনরায় অনুষ্ঠান করা হবে।বিডিপ্রতিদিনি

চারিদিক/এম