শৈলকুপায় এবার কাউন্সিলর প্রার্থীর মৃতদেহ উদ্ধার

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি॥
৫ ঘন্টার ব্যবধানে ঝিনাইদহের শৈলকুপা পৌর সভার নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা নিয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত হোসেনের ছোট ভাই লিয়াকত হোসেন বল্টু (৫০) নিহত হওযার পর এবার একই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আলমগীর হোসেন বাবুর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার দিনগত রাত ২ টার দিকে শৈলকুপার কুমার নদ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

শৈলকুপা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম জানান, বুধবার রাতে কবিরপুর ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত হোসেন ও তার ছোট ভাই আওয়ামীলীগ নেতা লিয়াকত হোসেন বল্টু রাতে পৌর এলাকার কবিরপুরের ভূইমালী পাড়াতে প্রচারনা চালাতে যায়।

এ সময় তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী পাঞ্জাবী মার্কার আলমগীর হোসেন বাবুর সমর্থকরা তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। হামলায় বল্টুর ভাই কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত হোসেনও আহত হন। গুরুতর আহত বল্টুকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  রাতেই তার মৃত্যু হয়।
এ ঘটনার জেরে ৫ ঘন্টার ব্যবধানে রাত ২ টার দিকে শৈলকুপার কুমার নদ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আলমগীর হোসেন বাবুর মৃতদেহ। নদীর ভেতরে দাঁড়ানো অবস্থায় ছিল তার মৃতদেহটি।  কিভাবে মৃত্যু হয়েছে এই কাউন্সিলর প্রার্থীর তা এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।

ময়না তদন্তের পর মুত্যুর কারণ জানা যাবে বলে জানান শৈলকুপা থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম।
পর পর ২টি মৃত্যুর ঘটনায় শৈলকুপা পৌরসভার নাগরিক ও ভোটারদের মাঝে চরম উদ্বেগ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। পরবর্তি সংর্ঘষর এড়াতে  পৌর এলাকার সর্বত্র পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।