যশোর সাহিত্য পরিষদ উচ্ছেদের প্রতিবাদ সাংস্কৃতিক কর্মীদের

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর যশোর জেলার খবর

যশোর প্রতিনিধি।।

সড়ক সম্প্রসারনের অজুহাতে যশোরের ঐতিহ্যবাহী সাহিত্য চর্চা কেন্দ্র যশোর সাহিত্য পরিষদের কার্যালয় ‘উচ্ছেদের’ অভিযোগ করেছেন সংগঠনটির নেতারা। প্রতিবাদে শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান ও মানবন্ধন করেছেন জেলার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
গেল বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) দুপুরে যশোর-বেনাপোল সড়ক সম্প্রসারন প্রকল্পের শহর অংশের কাজ চলাকালে জেলা পরিষদের অভ্যন্তরে অবস্থিত কার্যালয়টির একাংশ বুলডোজার চালিয়ে ভেঙে দেয় সড়ক বিভাগ। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাহিত্য পরিষদসহ জেলার সাংস্কৃিতক কর্মীরা।

যশোর সাহিত্য পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ শাহিন ইকবাল অভিযোগ করে বলেন আমরা জেলা পরিষদের বরাদ্দ দেওয়া ভবনের একটা অংশে আমাদের কার্যক্রম চালাতাম, সেহেতু এখানে জেলা পরিষদের উচিৎ ছিল আমাদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা করা। কিন্তু তারা তা করেনি।

আমাদের কোন চিঠিও তারা দেয়নি, শুধু মৌখিকভাবে আমাদের সরে যেতে বলেছে। আমরা কোথায় আমাদের কার্যক্রম চালাবো সে বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত না দিয়ে এভাবে আমাদের কার্যালয় ভেঙে দেওয়া উদ্দেশ্যই বা কি, তা আমাদের মাথায় ঢুকছে না।’

তিনি জানান, সংগঠনটির কার্যক্রম চালানোর জন্য ভেঙে ফেলা ভবনের একটা অংশে অথবা জেলা পরিষদের কোন একটি ভবনে কার্যালয় স্থাপনের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়, এই দাবিতে শুক্রবার তারা জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন।
এদিকে এর প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন জেলার সব সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা।

শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে দশটায় সাহিত্য পরিষদের ভাঙাপড়া ভবনের সামনে মানববন্ধন করেন তারা। পরে জেলা প্রশাসকের বাসভবনে গিয়ে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারুর নেতৃত্বে মানববন্ধন থেকে ভবন ভাঙার প্রতিবাদের পাশাপাশি সাহিত্য পরিষদ রক্ষারও জোর দাবি জানানো হয়। ওই সময় তারা বলেন, প্রায় ৩৮ বছর ধরে ওই ভবনে যশোরের কবি, সাহিত্যিকরা সাহিত্য চর্চা করে আসছেন। কোনো কিছু না জানিয়ে আকস্মিক ভবনটি ভেঙে দেওয়ায় কবি, সাহিত্যিকরা মর্মাহত। এজন্য দ্রুত ভবনটি সংস্কার করে রক্ষার দাবি তাদের।
মানববন্ধন শেষে নেতারা জেলা প্রশাসকের বাংলোয় যান। এসময় তারা জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খানের কাছে সার্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরেন এবং সাহিত্য পরিষদ সংস্কার করে রক্ষার দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদানকালে যশোর সাহিত্য পরিষদের সভাপতি শাহীন ইকবাল, সদস্য মাজেদ নেওয়াজ, সদস্য কামরুল হাসান, শামীমা ইয়াসমিন শম্পা, বিদ্যুৎ দে, পুনশ্চ যশোরের উপদেষ্টা সুকুমার দাস, চাঁদের হাট যশোরের সভাপতি ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, তীর্যক যশোরের সাধারণ সম্পাদক দীপংকর দাস রতন, বিবর্তন যশোরের সভাপতি নওরোজ আলম খান চপল, সাধারণ সম্পাদক দীপংকর বিশ্বাস, ভৈরব সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভাপতি সায়েদা বানু শিল্পী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।