বাঘারপাড়ায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ গেল মাদ্রাসা ছাত্রের

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর যশোর জেলার খবর

স্টাফ রিপোর্টার।।

যশোরের বাঘারপাড়ায় ট্রাকের চাকায়  পিষ্ট হয়ে সোয়াইব হোসেন (১০) নামে এক মিাদ্রাসা শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) সকালে বাঘারপাড়া-খাজুরা সড়কের নলডাঙ্গা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।ঘাতক ট্রাক ড্রাইভার ও হেলপারকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।নিহত সোয়াইব উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের ভাতুড়িয়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। সে রায়পুর হাফেজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, তিনটি বাইসাইকেলযোগে তিনজন শিশু রায়পুরের দিকে যাচ্ছিল। নলডাঙ্গা এলাকার শামসুর রহমানের দোকানের পাশে পৌঁছালে বাঘারপাড়ার দিক থেকে ছেড়ে আসা (ঢাকা মেট্রো-ট-১৬-২৮০২) নাম্বারের একটি ধান বোঝাই ট্রাক তাদের কাছাকাছি এসে হর্ণ দেয়।এ সময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই তারা রাস্তায় ছিটকে পড়ে। এ সময় ট্রাকের চাকায়  পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। সোয়াইবের বুকের উপর দিয়ে ট্রাক উঠে যায়।

পুলিশ জানায়, ঘাতক ট্রাক ড্রাইভার নারিকেলবাড়িয়া এলাকার মৃত ধীরেন অধিকারীর ছেলে পলাশ অধিকারী ও একই এলাকার আমিনুল হোসেনের ছেলে হেলপার বায়েজিদকে ঘটনাস্থল থেকে হেফাজতে নেয় পুলিশ। একইসাথে ট্রাকটিও পুলিশে হেফাজতে রাখা হয়েছে।পওে তাদেও আটক দেখানো হয়।

নিহতের চাচা মঞ্জুর হোসেন জানিয়েছেন, সোয়াইব সকালের খাবারের উদ্দেশ্যে মাদ্রাসা থেকে বাড়ি আসে। খাবার খেয়ে সাথে দুপুরের খাবার নিয়ে বাইসাইকেলযোগে মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে খবর আসে সোয়াইব ট্রাকের চাকায় পৃষ্ট হয়ে নিহত হয়েছে। সোয়াইবের বাবা একজন কৃষক। তারা তিন ভাই বোন।

বাঘারপাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান,ঘাতক ট্রাক,ট্রাক ড্রাইভার ও হেলপারকে আটক করা হয়েছে।