তৃণমূলকে বেশি মূল্যায়ন করতে হবে:বিএম মোজাম্মেল

দেশের খবর রাজনীতি

যশোর প্রতিনিধি।।

যশোর সদর উপজেলা ও শহর আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য বিএম মোজাম্মেল হক বলেছেন, আওয়ামী লীগ বৃহত্তর দল। দলে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা আছে ও থাকবে। এটা দোষের কিছু নয়। কিন্তু প্রতিহিংসা পরায়ন হওয়ার কোন সুযোগ নেই। প্রতিহিংসার বশবতী হয়ে কোন নেতাকর্মীর ক্ষতি করলে তিনি যত বড় নেতাই হন না কেন, তাকে ছাড় দেয়া হবে না। তৃণমূল দলের প্রাণ। তৃণমূলকে বেশি মূল্যায়ন করতে হবে। তৃণমূল শক্তিশালী থাকলে সব নির্বাচনে ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে নৌকা বিজয়ী হবে। নেতাকর্মীদের সব ভেদাভেদ ও হিংসা ভুলে যেয়ে সদর উপজেলায় নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে গণজোয়ার সৃষ্টি করতে হবে। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগের কাছে কোন অপশক্তি মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারবে না।

শুক্রবার (৯ অক্টোবর) জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বিএম মোজাম্মেল হক এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার হাতে ক্ষমতা থাকলেই দেশ নিরাপদ থাকে। দেশে সন্ত্রাস, টেন্ডারবাজ, লুটপাট ও দুর্নীতি হয় না। দেশে আইনের সঠিক প্রয়োগ হয়। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নিরার মত ভাল মানুষকে বিজয়ী করার কোন বিকল্প নেই। নীরার বিরুদ্ধে কোন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ নেই। তিনি পরিশ্রমী মানুষ। নির্বাচনে বিজয়ী হলে উন্নয়নের গতি বেগমান থাকবে।

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আপনারা সাধারণ মানুষকে বুঝাবেন বঙ্গবন্ধুর নৌকা দেশের স্বাধীনতা দিয়েছে। শেখ হাসিনার নৌকা উন্নয়নের জোয়ার সৃষ্টি করেছে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ধরে নীরাকে নৌকায় ভোট দেয়ার কোন বিকল্প নেই।

প্রতিনিধি সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদার ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহিত কুমার নাথের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহারুল ইসলাম, পৌর কাউন্সিলর রোকেয়া পারভীন ডলি, পৌর কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান চাকলাদার মনি, সদর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক অশোক কুমার বোস ও ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা  আব্দুল্লাহ রানা, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী। এ সময় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলালীগ, যুবমহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।