বাঘারপাড়ায় ৮ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী ধর্ষণের অভিযোগ !

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর যশোর জেলার খবর

স্টাফ রিপোর্টার।।

যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা ভাঙ্গুড়া চকেরডাঙ্গা এলাকায় ৮ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।  তবে তাৎক্ষণিক  ধর্ষণের কোন আলামত পাননি চিকিৎসক।

ওই মেয়েকে বুধবার (৭ অক্টোবর) রাতে বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে আনা হয়। রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ সার্কেল) জামাল আল নাসের ও বাঘারপাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আল মামুন।

মেয়েটির মা জানান,বুধবার রাত আনুমানিক সাড়ে  ৭ টার দিকে তার মেয়ে বাড়ি থেকে  বের হয়।এর কিছুক্ষণ পর একজন বলে তাদের মেয়ে পাশের ভাটার দিকে যেতে দেখলাম। এ সময় মেয়েটির বাবাসহ বাড়ির লোকজন তাকে খুঁজতে বের হয়। এ সময় মেয়েটিকে ভাটার পাশে পড়ে থাকা অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে বাড়ি ও পরে বাঘারপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসে।

তবে মেয়েটি বার বার বলছিল ‘আমাকে  জেঠা ডেকেছিল।তাই গেছিলাম’।( ‘জেঠা /চাচা বছর তিনেক আগে মারা গেছেন। )।

এদিকে প্রতিবেশীরা অভিযোগ করেন, স্থানীয় এক যুবক মেয়েটিকে নির্যাতন করেছে। ওই যুবক একজন মুদি দোকানি। অন্য একটি সূত্র বলছে মেয়েটির সাথে ওই যুবকের প্রেমজ সম্পর্ক ছিল।

এদিকে রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শণ শেষে বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে এসে মেয়েটিকে জিজ্ঞাসসাবাদ করেন যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ সার্কেল) জামাল আল নাসের।এ সমযয় তিনি বলেন,‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ওই এলাকায় ঘুরে এসেছি। শুনেছি মেয়েটির সাথে স্থানীয় এক যুবকের প্রেমজ সম্পর্ক ছিল। তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।তবে তদন্ত না করে নিশ্চিত কিছু বলা যাবেনা।আগে মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা করানোর জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে।তারপর পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে’।খারাপ কাজ করে কেউ পার পাবেন না বলেও মন্তব্য করেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

রাতেই মেয়েটিকে যশোর জেরনারেল হাসপাতালে নেয়ার প্রস্তুতি চলছিল।