ঈদগাহ’র মিনার ভাঙ্গার অভিযোগে বিক্ষোভ বাঘারপাড়ায়

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল দেশের খবর যশোর জেলার খবর

স্টাফ রিপোর্টার।।

যশোরের বাঘারপাড়ায় একটি  ঈদগাহ্’র মিনার ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে- দাবি করে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার  দুপুরে উপজেলার চৌরাস্তা মোড়ে ‘জাগ্রত মুসলিম সমাজে’র ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। তবে স্থানীয় প্রশাসন বলছে-ঈদগাহর মিনার নয়,ভাঙ্গা হয়েছে একটি দেয়াল।

এদিন জুম্মার নামাযের পর বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলা সদরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পদক্ষিণ করে মানববন্ধনে মিলিত হয়। আধাঘণ্টাব্যাপি অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দা ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ, মুফতি সাইফুল্লাহ, মাওলানা মহিবুল্লাহ হাবিবি, আশরাফুল কবির প্রমুখ।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ঈদগাহর এই জমি নিয়ে আদালতে মামলা বিচারাধীণ। বৃহস্পতিবার মামলার শুনানীর দিন ছিল। সেখানে কোন সুরাহা হয়নি।  নোটিশ ছাড়া বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা জান্নাত পুলিশ নিয়ে উপজেলার আগ দোহাকুলা শালবরাট ঈদগাহের মিনার ভেঙ্গে দেন। যে কারনে মুসল্লিরা ফুঁসে উঠেছে।

গ্রামবাসী জানায়,দোহাকুলা মৌজার ১৮৭৮ নং সাবেক দাগের ২৫ শতাংশ জমির উপর দীর্ঘ পনের বছর ধরে এলাকার মুসলিম সমাজ ঈদের নামাযের জামাত আদায় করে আসছিল। তৎকালিন সময়ে সরকারি রাস্তা নির্মাণের জন্য জায়গাটি নির্বাচন করা হয়। যাতায়াতের সুবিধার্থে ওই জায়গা দিয়ে রাস্তা না করে ঈদগাহের পাশে আগ-দোহাকুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে দিয়ে ব্যক্তি মালিকানা জমির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হয়। পরে ব্যক্তিমালিকানা জায়গাগুলো সরকারি তালিকায় চলে যায়। ঈদগাহের জমি দিয়ে রাস্তা নির্মাণ না হওয়ায় এলাকার মুসল্লিরা তখন ঈদগাহ নির্মাণ করেন।সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দা ও উপজেলা পরিষদের ভাইসচেয়ারম্যান  আব্দুর রউফ বলেন, কোন নোটিশ ছাড়াই ঈদগাহের মিনার ভেঙ্গে দিয়েছে প্রশাসন। যা দুঃখজনক।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা জান্নাত বলেন, ‘ঈদগাহর মিনার নয়,ভাঙ্গা হয়েছে দেয়াল। সেখানে ভূমিহীন ছয় পরিবারকে বন্দবস্ত দেওয়া রয়েছে’।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানিয়া আফরোজ বলেন,‘আমি খোঁজ নিয়ে জেনেছি ২০১৭ সালে ওই স্থানে ভূমিহীন ছয় পরিবারকে বন্দোবস্ত দেয় সরকার। যেটা ভাঙ্গা হয়েছে-সেটা ঈদাগাহ’র মিনার নয়।