কাজলের জানাজায় মানুষের ঢল

দেশের খবর যশোর জেলার খবর রাজনীতি

স্টাফ রিপোর্টার।।
সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা নাজমুল ইসলাম কাজলের নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হযেছে । তার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয় জোহরবাদ বিকেল সাড়ে ৩ টায় বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদ চত্বর এবং দ্বিতীয় জানাজা বাদ আছর তার নিজ ইউনিয়ন জামদিয়ার ভাঙ্গুড়া কলেজ মাঠে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বাঘারপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রনজিৎ রায়সহ জেলা-উপজেলা আওয়ামীলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। জানাজায় অংশ নেন যশোর জেলা আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ,স্থানীয় বিএনপি নেতা-কর্মী,প্রশাসনের কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক দলের কয়েক হাজার মানুষ। এ সময় কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নেতৃবৃন্দ। জানাজা শেষে তাকে নিজ বাড়ি জামদিয়ার আমুড়িয়ায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। একই ঘটনায় নিহত নাজমুল ইসলাম কাজলের ফুফাতো ভাই রাসেল আহমেদের (৩০) জানাজা শেষে জামদিয়ার করিমপুরে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
এর আগে দুপুর পৌনে ২ টায় নাজমুল ইসলাম কাজলের মরদেহ তার গ্রামের বাড়ি উপজেলার জামদিয়া ইউনিয়নের আমুড়িয়ায় পৌঁছালে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। এ সময় স্বজনদের আহাজারীতে বাতাস ভাড়ি হয়ে ওঠে।
জানাজায় উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি হায়দার গণি খান পলাশ ও গাজী গোলাম মোস্তফা,জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল ও মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী, যশোর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহিত কুমার নাথ,সাধারণ সম্পাদক শাহারুল ইসলাম,যশোর শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ,সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু,যশোর সদর উপজেলা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল,বাঘারপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা হাসান আলী, একই সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হোসেন,বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ, পৌর মেয়র কামরুজ্জামান বাচ্চু, আওয়ামীলীগ নেতা অধ্যক্ষ আজগর আলী,মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার শহিদুল্যা.আব্দুল আজিজ, বিএনপি নেতা ও বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মসিয়ুর রহমান,বিএনপি নেতা ও বাঘারপাড়া পৌরসভার সাবেক মেয়র আব্দুল হাই মনা, ইউপি চেয়ারম্যান আবু মোতালেব তরফদার,মঞ্জুর রশিদ স্বপন,সবদুল হোসেন খান,আবুল সরদার,দিলু পাটোয়ারী,আয়ুব হোসেমন বাবলু, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক রাজিব রায়,যুগ্ন আহবায়ক কামরুজ্জামান লিটন,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বায়েজিদ হোসেন,সাধারণ সম্পাদক বিএম শাহাজালাল প্রমূখ।
সোমবার হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ট্রাক ও মাইক্রোবাসের সংর্ঘষে এক নারীসহ চারজন নিহত হন। এর মধ্যে নাজমুল ইসলাম কাজল ও তার ফুফাতো ভাই রাসেল (৩০),
ঢাকার তালতলা এলাকার সুমন মিয়ার মেয়ে আঁখি আক্তার (২০)। অজ্ঞাত আরও একজন। জিপের আরেক যাত্রী ঢাকার তালতলার মাগফিরাত মিমের (২৫) অবস্থা আশঙ্কাজনক।