যশোরের বেজপাড়ায় সশস্ত্র ছিনতাই

অপরাধ ও আইন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল যশোর জেলার খবর

যশোর প্রতিনিধি।।
দীর্ঘদিন পর যশোর শহরের বেজপাড়া বনানী রোডস্থ পাখি চেয়ারম্যানের বাড়ির সামনে রিকশা থামিয়ে রাতে চিহ্নিত ছিনতাইকারীরা এক মটরস পার্টস ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাত করে নগদ অর্ধ লক্ষাধিক টাকা ছিনতাই করেছে। এ ঘটনায় পাঁচ ছিনতাইকারীর নাম উল্লেখ করে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় আসামীরা হচ্ছে,যশোর শহরের বেজপাড়া সাদেক দারোগার মোড় শিশু স্বর্গ প্রাইমারী স্কুলের পাশের্ আইয়ূব আলীর ছেলে সুমন, বেজপাড়া জয়নাল ডেইরী ফার্মেও পাশের্^ মোস্তফার ছেলে শামীম, খালধার রোড আলীয়া মাদ্রাসার পিছনে কাশেম আলীর ছেলে হাসান ওরফে খারবী হাসান,বেজপাড়া সাদেক দারোগার মোড় শিশু স্বর্গ প্রাইমারী স্কুলের পাশের্ বাবুলের ছেলে রাব্বি ও বেজপাড়া সাদেক দারোগার মোড়স্থ ওলিয়ারের ছেলে সোয়াদ।
যশোর শহরের বেজপাড়া বনানী রোডস্থ আতিয়ার রহমানের ছেলে সিরাজুল ইসলাম বাদি হয়ে সোমবার কোতয়ালি মডেল থানায় উল্লেখিত চিহ্নিত ছিনতাইকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে বলেন,তার শহরের বকচর কোল্ড ষ্টোর মোড়স্থ পাম্পের পাশের্^ রাজু মটরস নামক দোকান রয়েছে। ২৩ আগষ্ট রোববার রাত সোয়া ৯ টায় দোকান বন্ধ করে রিকশা যোগে বাড়িতে ফিরছিল। রাত সাড়ে ৯ টায় রিকশাটি বেজপাড়া বনানী রোড পাখি চেয়ারম্যানের বাড়ির সামনে পৌছালে সুমনসহ উল্লেখিত আসামীরা তার রিকশার গতিরোধ করে। এ সময় তাকে রিকশা থেকে টানা হেচড়া করে নামিয়ে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে মারপিটের এক পর্যায় বার্মিজ চাকু দিয়ে তার পেটে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। তার পকেট থাকা নগদ ৫৫ হাজার ৭২০ টাকা কেড়ে নেয়। সিরাজুল ইসলার রাজুর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে চলে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন সিরাজুল ইসলামকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।